Sangeet Byakaran

সদারঙ্গ-অদারঙ্গ

 ১৭১৯-১৭৪৮ পর্যন্ত  বাদশাহ মহম্মদ শাহ দিল্লীতে রাজত্ব করেন। তাঁর দরবারে বীণকার নিয়ামৎ খাঁ,যিনি তানসেনের কন্যার অধস্তন দশম পুুুরুষ ছিলেন,তিনি নিজেকে 'সদারঙ্গীলে মহম্মদ শাহ" বলে পরিচয় দিতেন।তাঁর পিতামহ খুশহাল খাঁ ও পিতা ছিলেন লাল খাঁ সানী।তিনি বাদশাহের নাম জুড়ে খেয়াল রচনা করেছিলেন খেয়ালের সে সময় প্রচার ছিল না বলে।অনেকেই সে সময় খেয়াল রচনা করেছিলেন, কিন্তু বাদশাহের কাছে ও সেইসঙ্গে জনতার কাছেও গ্রহণযোগ্য হয় নি। 

বাদশাহ মহম্মদ শাহ ইচ্ছা প্রকাশ করেন যে তাঁর দরবারে বীণার সঙ্গে সারেঙ্গী ও বাজবে।এতে নিয়ামৎ খাঁ অসম্মানিত বোধ করেন ও অসম্মত হন।ফলে তিনি দরবার থেকে বহিষ্কৃত হন।নিয়ামৎ খাঁ শিষ্যগণকে সঙ্গে নিয়ে দিল্লী গেলেন ও শিষ্যগণ বাদশাহকে গান শোনালেন।গানে নিজের নাম পেয়ে বাদশাহ সন্তুষ্ট হয়ে রচয়িতার নাম জানতে চান।নাম জানার পর নিয়ামৎ খাঁ কে দরবারে এনে পুনরায় স্থান দেন।

সদারঙ্গ রচিত খেয়াল মূলত শৃঙ্গার রস প্রধান ও বাদশাহের প্রশস্তিমূলক ছিল।ধ্রুপদ গায়করা তাই 'স্ত্রীলোকের গীত' বলে উপহাস করতেন।অনেকে সে সময় খেয়াল রচনা করে সদারঙ্গের নাম জুড়তেন।তাঁর পুত্র ফিরোজ খাঁর নাম,যিনি অদারঙ্গ নামে পরিচিত ছিলেন,পিতার নামের সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে। 

মন্তব্য

এই ব্লগটি থেকে জনপ্রিয় পোস্টগুলি

Sangeet Byakaran

Sangeet Byakaran

Sangeet shastra/Byakaran