পোস্ট

সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০ থেকে পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে

Sangeet Shastra/Sangeet Byakaran

অলঙ্কার- অলঙ্কার রাগ-রাগিণীর সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে।কিছু নিয়মিত বর্ণের সমষ্টি হল অলঙ্কার।অলঙ্কারের উদ্দেশ্য হল দ্রুত রাগকে বিস্তারিত করার জ্ঞাণ অর্জন করা।একে পাল্টাও বলা হয়।স্বর এবং গলা সাধনা করার জন্য যে সরগম অভ্যাস করা হয়,তাই অলঙ্কার। ভারতে প্রচলিত দুটি সঙ্গীতপদ্ধতি স্বতন্ত্র হয় বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার কারণে।উত্তর ভারতে ঠাট ও দক্ষিণ ভারতে মেল পদ্ধতি চালু হয়(ঠাটকেই মেল বলা হয়)।ফলে ক্রমে উভয় পদ্ধতির স্বর,তাল,রাগ,গায়ন ইত্যাদির পরিবর্তন ঘটে। রাগ- ঠাট থেকে রাগের উৎপত্তি হয়েছে।স্বর ও বর্ণের মনোমুগ্ধকর রচনা হল রাগ।ধ্বনির বিশেষ রচনাকেও রাগ বলা হয়।রাগের বৈশিষ্ট্য: রাগে পাঁচটির কম স্বর থাকবেনা।পাঁচটি,ছয়টি ও সাতটি স্বর দ্বারা রাগ তৈরি হয়। রাগে 'সা' বর্জিত হয়না। 'মা' ও'পা' একসঙ্গে বর্জিত হয়না। আরোহ-অবরোহ উভয়ই থাকে। একটি বাদী ও একটি সমবাদী স্বর থাকে। রাগ পরিবশনের নির্দিষ্ট সময় থাকে। রাগে ব্যবহৃত স্বরকে বক্র গতিতে প্রয়োগ করা যায়। আরোহ-অবরোহণের স্বরসংখ্যা সমান হয়না সর্বদা।