পোস্ট

সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০ থেকে পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে

Sangeet shastra/Byakaran

ঠাট- এই শব্দের অর্থ কাঠামো।সপ্তক থেকে ঠাটের উৎপত্তি।কিছু বৈশিষ্ট্যপূর্ণ স্বর যা রাগ তৈরিতে সমর্থ,তাই ঠাট।হিন্দুস্থানী সঙ্গীতে দশটি ঠাটকে অনুসরণ করে রাগ সঙ্গীত তৈরি হয়েছে- বিলাবল ঠাট:সব স্বর শুদ্ধ ব্যবহৃত হয়।সা রে গ ম প ধ নি। মারবা:রে কোমল,ম তীব্র ও বাকী স্বর শুদ্ধ।এক্ষেত্রে 'রে'-র তলায় ড্যাশ চিহ্ন ও 'ম'-র উপরে দাঁড়ি চিহ্ন হবে কোমল ও তীব্র স্বর বোঝাতে। টোড়ী:রে গ ধ কোমল,ম তীব্র ও বাকী শুদ্ধ স্বর। ভৈরবী:রে গ ধ নি কোমল ও বাকী শুদ্ধ স্বর। পূর্বী:রে ধ কোমল,ম তীব্র ও বাকী শুদ্ধ স্বর। ভৈরব:রে ধ কোমল,বাকী শুদ্ধ স্বর। আশাবরী:গ ধ নি কোমল,বাকী শুদ্ধ। কাফী:গ নি কোমল,বাকী শুদ্ধ। কল্যাণ-ম তীব্র,বাকী শুদ্ধ। খাম্বাজ:নি কোমল,বাকী শুদ্ধ। হিন্দুস্থানী সঙ্গীতে অথবা ভাতখন্ডে স্বরলিপি পদ্ধতিতে কোমল স্বরের তলায় ড্যাশ চিহ্ন তীব্র স্বরের মাথায় দাঁড়ি চিহ্ন বসানো হয়।রে গ ধ নি হল কোমল স্বর ও ম তীব্র স্বর।