পোস্ট

অক্টোবর ২২, ২০২০ থেকে পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে

Sangeet Byakaran

দক্ষিণ ভারতের দেবগিরির(দৌলতাবাদ)রাজসভার কাশ্মীরী ব্রাহ্মণ শার্ঙ্গদেব ১২৩১ খ্রিস্টাব্দ "সঙ্গীত রত্নাকর" গ্রন্থ রচনা করেন।এটি উত্তর ও দক্ষিণ ভারতীয় সঙ্গীতের আকর গ্রন্থ বলে মানা হয়। সুলতানি আমলে আলাউদ্দিন খিলজির সময় (১২৯৬-১৩১৬)প্রসিদ্ধ সঙ্গীতজ্ঞ আমীর খুসরো আবির্ভূত হন।অনুমান করা হয় যে তিনি সেতার,তবলা;সাজগিরি,সরপরদা,জিলক প্রভৃতি রাগ;গানের ধরণ হিসাবে কাওয়ালী,তারানা;আড়াচৌতাল,সুরফাঁকতাল,ঝুমরা ইত্যাদি তাল সৃষ্টি করেন।তিনি "মোকাম" পরিভাষা প্রবর্তন করেন ভারতীয় সঙ্গীতে।ফার্সি সঙ্গীতে ঠাটের পরিবর্তে মোকামে রাগগুলিকে ভাগ করেন। উত্তরমধ্যকালের আর একটি উল্লেখযোগ্য  গ্রন্থ লোচন কৃত "রাজতরঙ্গিনী" ।ইনি রাগকে ১২টি হাটে ভাগ করেন।তাঁর মতে শুদ্ধ ঠাট হল কাফী।পঞ্চদশ শতাব্দীতে জৌনপুরের সুলতান হুসেন শাহ শর্কী খেয়ালের নতুন শৈলী প্রবর্তন করেন ও নতুন রাগ তৈরি করেন।