পোস্ট

এপ্রিল ৩০, ২০২১ থেকে পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে

Sangeet Shastra/Sangeet Byakaran

রবীন্দ্রসঙ্গীতে তালের বৈচিত্র্য লক্ষণীয়।রবীন্দ্রনাথ বলেছেন যে গানের ভাব অনুযায়ী তালের ছন্দ নির্দিষ্ট হওয়া উচিৎ। কোনো কোনো গান তাল ছাড়াও হতে পারে।তিনি মূলত দক্ষিণ ভারতীয় তালের কাঠামো অনুসরণ করে তাল তৈরী করেছেন। আবার,হিন্দুস্তানী কিছু তালের ছন্দ পরিবর্তন করেছেন।সুরফাঁকতালের ছন্দ ২|২|২|২|২,তবে রবীন্দ্রনাথ ৪|২|৪ ছন্দে তালটিকে তৈরী করেছেন। আড়াচৌতালের ছন্দ ২|২|২|২|২|২|২,রবীন্দ্রসৃষ্ট ছন্দ ২|৪|৪|৪। ধামার তালের ছন্দ ৫|২|৩|৪,রবীন্দ্রসৃষ্ট ছন্দ ৩|২|২|৩|৪।   ঝাঁপতালকে ৫|৫ ছন্দে,একতালকে ৪|৪|৪ ছন্দে তৈরী করেছেন।আবার তিনি নিজের তৈরী তালেরও ছন্দ পরিবর্তন করেছেন। যেমন নবতাল থেকে ৯ মাত্রার ছন্দ, একাদশী থেকে ৩|৪|৪ ছন্দের তাল। ষষ্ঠী তাল থেকে ৪|২ ছন্দের তাল।  রবীন্দ্রনাথ ভানুসিংহ ঠাকুর ছদ্মনামে কিছু গান রচনা করেন, যা মৈথিলি বা ব্রজবুুুলী ভাষায় লেখা। অক্ষয়চন্দ্র সরকার ও সারদাচরণ মিত্র দ্বারা সংকলিত প্রাচীন কাব্যের বইয়ের দ্বারা তিনি প্রভাবিত হন।সেটি মৈথিলি ভাষায় ছিল। ভানুসিংহের পদাবলীর গানে বৈষ্ণব পদাবলীর প্রভাব দেখা যায়। মোট ২২ টি গান আছে,এর মধ্যে ৯ টি গানের স্বরলিপি আছে ২১ নং স্বরবিতানে।বাকী গানের স্বরলিপ